বন্ধুর সঙ্গে স্ত্রীকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখার পর গাছের ডালে স্বামীর লাশ

3 / 100

শাহাদুল ইসলাম সাজু, জয়পুরহাট থেকে: জয়পুরহাট সদর উপজেলার পশ্চিম রামকৃষ্ণপুর সরদার পাড়া গ্রামে স্ত্রীর অনৈতিক সম্পর্কে বাধা দেওয়ায় রেজাউল নামে এক ব্যক্তিকে হত্যার অভিযোগ তার পরিবারের। পুলিশ জানায়, নিহত রেজাউল ইসলাম (৪২) জয়পুরহাট সদর উপজেলার পশ্চিম রামকৃষ্ণপুর সরদার পাড়া গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে। মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালে ওই গ্রামের মফিজ মেম্বারের বাড়ির পাশের জঙ্গলের ভিতরে পুকুর পারে একটি গাছের ডালে ঝুলানো মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, জয়পুরহাট সদর উপজেলার পশ্চিম রামকৃষ্ণপুর সরদার পাড়া গ্রামে গত ২৩ ডিসেম্বর নিজ স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের (৩৫) সাথে বন্ধু শহিদুল ইসলামের সাথে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পান স্বামী রেজাউল ইসলাম। এ বিষয়ে বৈঠকও হয় তাদের। এরপর গতকাল সোমবার রাতে রেজাউলকে ডেকে নিয়ে যায়, আর খোঁজে পাননি তার পরিবার। আজ মঙ্গলবার সকালে রেজাউলের মরদেহ পাওয়া গেল জঙ্গলের ভিতর পুকুর পাড়ের একটি গাছের ডালেব সাথে। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতের পিতা আব্দুল খালেক বলেন, তার ছেলের বন্ধু পাশের গ্রামের শহিদুলের সাথে আমার নিজ বাড়িতে রেজাউল ইসলামের স্ত্রী মনোয়ারার সাথে আপত্তিকর অবস্থা দেখতে পায়। পরে বিষয়টি নিয়ে গোপনে বৈঠক হয়েছে। এরপর গতকাল সোমবার রাতে দুজন রেজাউলকে তার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। আজ সকালে জঙ্গলে পুকুর পাড়ের একটি গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় ছেলের মরেদহ পাওয়া গেল। আমার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হত্যার পর মরেদহ গাছের ডালে ঝুলিয়ে রেখেছে। সঠিক তদন্ত করে দোষীদের কঠোর শাস্তি চাই।

জয়পুরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আলমগীর জাহান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে জানা যাবে মৃত্যুর কারণ।

Leave a Comment