বোনকে উত্ত্যক্তের বিচার চাওয়ায় ৩ ভাইকে কুপিয়ে জখম

7 / 100

কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলায় স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে বোনকে উত্ত্যক্তের বিচার চাওয়ায় তিন ভাইকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে। তাদের ঘরবাড়িও ভাঙচুর করা হয়েছে।

শুক্রবার (২২ জুলাই) রাত ৭টায় পৌর শহরের ভৈরবপুর উত্তরপাড়া স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আহত হাসান মাহমুদ, উলি উল্লাহ ও আসাদুল্লাহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ভৈরবপুর উত্তরপাড়ার স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় নিজ বাড়িতে কয়েক বছর ধরে বসবাস করছেন ডা. আবু বক্কর ছিদ্দিকের পরিবার। তার ছোট মেয়ে ভৈরবের একটি স্কুলের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী। বাসা থেকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে তাকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতো একই এলাকার কাজল মিয়ার ছেলে শিপন। বাসায় ফিরে বিষয়টি পরিবারকে জানায় ওই ছাত্রী। স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে বিচার চান তার পরিবারের লোকজন। পরে সালিশ বৈঠকের একটি দিন নির্ধারণ করা হয়।

সালিশের কথা শুনেই শুক্রবার রাতে শিপনসহ একদল যুবক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ভুক্তভোগীর বাসায় হামলা চালায়। এ সময় বাধা দিলে সঙ্গে থাকা রামদা দিয়ে তিন ভাইকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে তারা। এ সময় বাড়ি ও ফার্মেসি ভাঙচুর করে তারা। পরে চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে এসে তাদের উদ্ধার করে ভৈরব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করে।

ভুক্তভোগীর বাবা আবু বক্বর ছিদ্দিক অভিযোগ করে বলেন, ‘শুক্রবার রাতে শিপনসহ একদল যুবক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমার বাসায় হামলা চালায়। এ সময় আমার তিন ছেলে তাদেরকে বাধা দিলে রামদা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এ ঘটনায়জড়িতদের বিচার চাই।’

ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা জানান, তিন ভাইকে কুপিয়ে জখমের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনতে পুলিশ কাজ করছে।

Leave a Comment