হাত-পা বাঁধা অবস্থায় যুবকের লাশ উদ্ধার

 

সিলেটের জাফলং সীমান্ত এলাকা থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় কাউছার মিয়া নামের এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে গোয়াইনঘাট থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) দিবাগত রাত পৌনে একটার দিকে জাফলং সংগ্রামপুঞ্জি বিজিবি ক্যাম্পের প্রায় পাঁচশত গজ পূর্বে একটি টিলা সংলগ্ন জমি থেকে কাউছার মিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়।নিহত কাউছার সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলার কালাম বহরপুর গ্রামের আবদুল বাছিতের ছেলে। হত্যাকান্ডে জড়িত সন্দেহে এক ব্যাক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে গোয়াইনঘাট থানা পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে হাত-পা বাধা অবস্থায় অজ্ঞাত যুবকের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে অবগত করেন। গোয়াইনঘাট থানা পুলিশ জাফলং সংগ্রামপুঞ্জি বিজিবি ক্যাম্পের প্রায় পাঁচশত গজ পূর্বে একটি টিলা সংলগ্ন জমিতে হাত পা বাঁধা অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার করেন। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক গোয়াইনঘাট সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার প্রবাস কুমার সিংহ, গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ কে এম নজরুল ইসলাম ও গোয়াইনঘাট থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) ওমর ফারুক লাশ উদ্ধার করেন।পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেছে।

এর আগে একই দিন দুপুরে উপজেলার সাকেরপেকেরখাল গ্রামের একটি খাল থেকে মুক্তার হোসেন নামের এক যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত ব্যাক্তি উপজেলার ভিতরগুল গ্রামের কুটু মিয়ার ছেলে।

হত্যাকাণ্ডের কারন উদ্ধার ও আসামী সনাক্তে পুলিশি তৎপরতা চলছে বলে জানান ওসি নজরুল। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দুইটি হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে থানায় কোনো মামলা রুজু করা হয়নি।

Leave a Comment