মোবাইল ফোন কিনে না দেওয়ায় তরুণের আত্মহত্যা

 

নাটোরের বাগাতিপাড়ায় মোবাইল ফোন কিনে না দেওয়ায় বাবার ওপর অভিমান করে সাব্বির হোসেন রিমন (১৯) নামে এক তরুণ আত্মহত্যা করেছেন। সোমবার সন্ধ্যায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। 

সাব্বির হোসেন রিমন বাগাতিপাড়া পৌরসভার লক্ষণহাটী মহল্লার জেলাস আলীর ছেলে। পেশায় সে একজন রাজমিস্ত্রি ছিল। 

স্থানীয় সূত্র জানা গেছে, কয়েক দিন ধরে বাবা জেলাস আলীর কাছে একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল কিনে নেওয়ার বায়না ধরেছিল সাব্বির হোসেন। কিন্তু বাবা তাকে ফোন কিনে দিতে না পারায় সোমবার সবার অলক্ষ্যে সে বিষাক্ত ট্যাবলেট খায়। বিষক্রিয়া শুরু হলে বিকালের দিকে পরিবারের লোকজনকে সে বিষয়টি জানায়।  দ্রুত তাকে স্থানীয় বাগাতিপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করা হয়। পথিমধ্যে সে মারা যায়। পরে রাত সাড়ে ১০টায় পেড়াবাড়িয়া কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। 

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক সুমাইয়া আফরিন জানান, গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে গুরুতর অসুস্থ সাব্বিরকে হাসপাতালে আনা হলে আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছিল। 

এ বিষয়ে বাগাতিপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সিরাজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, কোনো অভিযোগকারী না থাকায় ওই তরুণের লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে এ সংক্রান্ত একটি ইউডি মামলা হয়েছে।

Leave a Comment