পুত্রবধূকে নিয়ে শ্বশুর উধাও, শাশুড়ির পুরষ্কার ঘোষণা শিপন সিকদার

7 / 100

, নারায়ণগঞ্জ থেকে: ফতুল্লার কুতুবপুরে পরকীয়া প্রেমের টানে পুত্রবধূকে নিয়ে শ্বশুর উধাওয়ের ঘটনা ঘটেছে৷ এসময় ওই যুগল ঘরে রক্ষিত স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ অর্থও নিয়ে যান৷ ঘটনাটি ঘটেছে কুতুবপুর ইউনিয়নের আমতলা এলাকায়। তাদের সন্ধান চেয়ে শ্যামলের স্ত্রী রাবেয়া আক্তার ও শ্যামলের সৎ পুত্র রফিকুল ইসলাম ইমন ফতুল্লা মডেল থানায় পৃথক লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযুক্তরা হলেন পাগলা শাহীবাজার আমতলা এলাকার শাহাউদ্দিনের মেয়ে জাকিয়া ইসলাম মুন্নি ও একই এলাকার সিরাজ শিকদারের ছেলে নাজমুল ইসলাম শ্যামল।

ইমনের অভিযোগের সূত্র থেকে জানা যায়, জাকির ইসলাম মুন্নির সাথে ইসলামিক শরীয়ত মোতাবেক গত ৫ বছর পূর্বে রফিকুল ইসলাম ইমনের বিয়ে হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে ৩ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে তাদের। কিন্তু শ্যামল মুন্নীর সাথে পরকীয়ায় লিপ্ত হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে ঘরে থাকা ৫০,০০০ টাকা ও শ্যামলের স্ত্রী রাবেয়া আক্তারের স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে গত ১০মে উভয়ে বাসা থেকে পালিয়ে যান।। এ ঘটনায় এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে আলোচনা করে ফতুল্লা মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করি।

এদিকে শ্যামলের স্ত্রী রাবেয়া আক্তারের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত নয় বছর পূর্বে একই এলাকার সিরাজ সিকদারের ছেলে নাজমুল ইসলাম শ্যামলের সাথে ইসলামিক শরীয়ত মোতাবেক বিবাহ হয় রাবেয়ার। তাদের দাম্পত্য জীবনে একটি ছয় বছরের ছেলেও রয়েছে। কিছুদিন ধরে শ্যামল স্ত্রী-সন্তানকে ভরণপোষণ না দিয়ে বিভিন্ন তালবাহানা শুরু করে। এমনকি আর সাথে সংসার করবে না বলেও জানায়। কিন্তু হঠাৎ গত ১০মে ঘরে থাকা টাকাপয়সা স্বর্ণালঙ্কারসহ মোট ৯ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা ও একটি ফেজার মোটরসাইকেল নিয়ে আমার সৎ পুত্রবধূ জাকিয়া ইসলাম মুন্নিকে সাথে নিয়ে পালিয়ে যায়। বিভিন্ন স্থানের খোঁজাখুঁজি করে উপায়ন্তর না পেয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন রাবেয়া। যদি তাদের কেউ খোঁজ খবর দিতে পারে তাহলে তাদেরকে উপযুক্ত পুরস্কার দেওয়া হবে, এমনটিও উল্লেখ করেছেন তিনি।

এ বিষয়ে অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার এসআই নজরুল বলেন, শশুর ও পুত্রবধূকে খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।

Leave a Comment