পি কে হালদারকে দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে যা বললো দুদক!

হাজার কোটি টাকা পাচারকারী এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার হালদার (পি কে হালদার) ভারতে গ্রেপ্তার হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (১৪ মে) সকালের দিকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে দাবি করেছে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা। এখন তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে ৩-৬ মাস লাগতে পারে বলে জানিয়েছে দু”র্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

পি কে হালদারের প্রেপ্তারের খবরের পর দুদকের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খুরশীদ আলম খান (১৩ মে) গণমাধ্যমকে বলেন, ভারত থেকে দেশের আসামি ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া বেশ সহজ।

যেটা কানাডা থেকে আমরা পারছিলাম না। আমরা আদালতের মাধ‌্যমে নির্দিষ্ট প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে তিন থেকে ছয় মাসের মধ‌্যে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে পারবো।

আইনজীবী খুরশীদ আলম আরো বলেন, ভারতে জ”ব্দকৃত সম্পত্তিগুলো যদি পি কে হালদার বাংলাদেশি টাকায় কিনে থাকেন, এমনটা প্রমাণিত হয়— তাহলে আদালতের মাধ‌্যমে দুদক সেগুলোও ফিরিয়ে আনবে।

দুদকের এই আইনজীবী বলেন, ভারতবর্ষসহ বিভিন্ন দেশে কিছু তথ‌্যের মাধ‌্যমে দু”র্নীতি দমন কমিশন অ‌্যামিলিয়ার করে, এটা হলো মিউচুয়াল লিগ‌্যাল অ‌্যাসিট‌্যান্ট রিকুয়েস্ট। মানে, আমরা তার (পি কে হালদার) কিছু ডাটা পেয়েছি।

ভারতবর্ষের পশ্চিমবঙ্গ, মুম্বাই বা দিল্লিতে পি কে’র কিছু প্রপার্টি থাকতে পারে- এই সূত্র ধরেই আমরা কিছু ডাটা ভারতকে দিয়েছি। এরপর মূলত তদন্ত শুরু হয়।

Leave a Comment