পার্লামেন্টে প’র্নোগ্রাফি দেখার দায়ে পদ ছাড়লেন ব্রিটিশ এমপি!

ব্রিটিশ পার্লামেন্ট কক্ষে বসে প”র্নোগ্রাফি দেখার দায় স্বীকার করে শাসকদল কনজারভেটিভ পার্টির একজন সংসদ সদস্য পদত্যাগ করছেন।

পদত্যাগকারী ব্রিটিশ ওই আইনপ্রণেতার নাম নিল প্যারিশ। অবশ্য পার্লামেন্টে বসে পর্ন দেখার দায়ে গত শুক্রবারই কনজারভেটিভ পার্টি অ”ভিযুক্ত প্যারিশকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছিল।

রোববার (১ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স এবং সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

নিল প্যারিশ ইংল্যান্ডের ডেভন এলাকার এমপি ছিলেন। পার্লামেন্ট কক্ষে বসে প”র্নোগ্রাফি দেখার অভিযোগের বিষয়ে তিনি বলছেন, সংসদ কক্ষে বসে মোবাইল ফোনে ট্রাক্টরের ভিডিও দেখতে গিয়ে তিনি প্রথমবার ভুল করে প”র্ন ভিডিও দেখে ফেলেন।

কিন্তু তিনি স্বীকার করেন, পরে তিনি ইচ্ছে করেই সেগুলো আবারও দেখেন। বিবিসির সাথে সাক্ষাৎকারে প্যারিশ বলেন, সেটা ছিল এক সাময়িক উন্মাদনা। এই ঘটনা নিয়ে তদন্ত শুরুর পর তিনি প্রকাশ্যে ক্ষমা প্রার্থনা করে এমপি’র পদ থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা করেন।

৬২ বছর বয়সী এই সংসদ সদস্য পার্লামেন্ট কক্ষে বসে যখন প”র্ন দেখছিলেন তখন তার পাশে বসা দু’জন নারী সহকর্মী ব্যাপারটি দেখে ফেলেন। তারা এনিয়ে অভিযোগ করার পর তুমুল হৈচৈ শুরু হয়।

নিল প্যারিশ বলেন, ‘আমার সবচেয়ে বড় অপরাধ ছিল (পর্নসাইটে) দ্বিতীয়বার যাওয়া। সেটি ছিল চরম ভুল এক কাজ। সারা জীবন আমাকে এই ভুলের বোঝা বয়ে বেড়াতে হবে।’

তার ভাষায়, ‘আমি ভুল করেছি। আমি বোকামি করেছি, আমি বোধ-শূন্য হয়েছিলাম।’ অবশ্য পার্লামেন্ট কক্ষে বসে নিল প্যারিশের এই কাণ্ডের কথা প্রকাশ পায় গত বুধবার।

এরপর গত শুক্রবার তার দল কনজারভেটিভ পার্টি প্যারিশকে সাময়িকভাবে ব”রখাস্ত করে। পার্লামেন্টে খোলামেলা যৌ”ন দৃশ্য দেখার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে।

Leave a Comment