নায়ক ফারুকের মৃত্যুর গুজব, যা বললেন পরিবার

 

ঢাকাই সিনেমার কিংবদন্তি অভিনেতা ও ঢাকা-১৭ আসনের এমপি আকবর হোসেন পাঠান ফারুক দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসা তার চলছে। তার শারীরিক অবস্থা বর্তমানে স্থিতিশীল বলে জানিয়েছে পরিবার।তবে রোববার (১০ এপ্রিল) সকালে হঠাৎ এ অভিনেতার মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। কে বা কারা

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভুয়া খবরটি ছড়িয়ে দিয়েছেন।সিঙ্গাপুরে চিত্রনায়ক ফারুকের সঙ্গে রয়েছেন তার স্ত্রী ফারহানা পাঠান। এ বিষয়ে জানতে তার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করা হয়। ফারহানা জাগো নিউজকে বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, তোমাদের প্রিয় ফারুক ভাই ভালো আছেন।’এসময় ফারহানা পাঠান অভিনেতা ফারুকের সুস্থতার

জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।এদিকে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বারবার অভিনেতা ফারুকের মৃত্যুর গুজব ছড়ানোয় বিরক্ত তার পরিবার। এর আগে গত বছরের ৮ এপ্রিল সন্ধ্যায় হঠাৎ তার মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে পড়ে। ঠিক এক বছর পর আবারও কিংবদন্তি এ অভিনেতার মৃত্যুর গুজব ছড়ানো হচ্ছে। এতে চরম বিরক্ত তার পরিবার ও স্বজনরা।

আরও পড়ুন= চট্টগ্রামে ইপিজেড থানাধীন বন্দরটিলা এলাকায় কাভার্ডভ্যানের চাকায় পিষ্ট হয়ে পিতা-পুত্রের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন স্ত্রী ও আরেক সন্তান নিহতরা হলেন- ইপিজেডের এইচকেডি গার্মেন্টস কর্মী আবু সালেহ (৩৮) ও তাঁর ছেলে আবদুল মোমিন (৫)। আহত অপর ছেলের নাম মাহিত (৪)। গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার পাথরঘাটায়, পরিবার নিয়ে থাকতেন বন্দরটিলা আকমল আলী রোডের মনির বিল্ডিংয়ে।প্রত্যক্ষদর্শী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, পরিবার নিয়ে মার্কেটে ঈদের কেনাকাটার করতে যাওয়ার সময় স্বামী-স্ত্রী ও পুত্র সন্তানরা রিকশায় ছিলেন। পেছনে ছিল কাভার্ডভ্যান। রাস্তা খারাপ হওয়ায় ঝাঁকুনিতে রিকশা থেকে তারা পড়ে

যান। এসময় পেছনে থাকা কাভার্ডভ্যানের চাকায় পিতা-পুত্র পিষ্ট হন। ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। উত্তেজিত জনতা কাভার্ডভ্যানটি ভাঙচুর এবং সড়কে অবরোধ করেন। পরে পুলিশ গিয়ে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করে।ইপিজেড থানার এসআই আবু সাঈদ বলেন, সকালে কাভার্ডভ্যান চাপায় দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কাভার্ডভ্যানটি জব্দ ও চালককে আটক করা হয়েছে।

Leave a Comment