টুইটারে হাসির পাত্র ইমরান খান

 

মাত্র ৩০ বছরের ব্যবধান। ১৯৯২ সালে পাকিস্তান ক্রিকেট দল যখন ইমরান খানের নেতৃত্বে বিশ্বকাপ ছিনিয়ে এনেছিল, তখন পাকিস্তান তো বটেই সারা বিশ্বের গণমাধ্যমের প্রশংসায় ভেসেছিলেন তিনি। সেই ইমরান খানই ২০২২ সালে যখন প্রধানমন্ত্রী হিসাবে আইনি বিপাকে, তখন তার দেশের জনগণই হাস্যরসের পাত্র বানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ট্রল করছেন। সেটা আবার ফলাও করে প্রকাশ করেছে পাকিস্তানি গণমাধ্যম জিও নিউজ। এটাই নিয়তি।বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের সুপ্রিমকোর্ট জাতীয় পরিষদের ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরের রায়কে বাতিল ঘোষণা করেছেন। সেসঙ্গে পুনর্বহাল করেছে জাতীয় সংসদ, যা ইমরান সরকারের আশার গুড়ে বালি ঢেলে দিয়েছে। শুধু তাই নয়, স্পিকার আসাদ কায়সারকে ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের ওপর ভোট গ্রহণেরও নির্দেশ দিয়েছেন, যা আজ সকাল ১০টায় অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। শীর্ষ আদালতের রায়ের পর স্বাভাবিকভাবেই ভেঙে পড়েছে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের মানসিক অবস্থা। কিন্তু এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ট্রলের পর ট্রল করেছেন পাকিস্তানের নাগরিকরা। পাশাপাশি শাহবাজ শরিফকে পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসাবেও ঘোষণা দিয়েছেন তার ভক্তরা। আর বেপরোয়া টুইট-ঝড়ে নাকাল হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

টুইট করা একটি ছবিতে দেখা যায়-ইমরান খান চাদর মুড়ি দিয়ে শুয়ে আছেন। উপরের ক্যাপশনে উর্দুতে লেখা-‘খান সাহেব উঠুন, শেষ বলটা খেলুন’। আরেকটি ছবিতে দেখানো হয়, সাইকেল নিয়ে বিমানে উঠে যাচ্ছেন ইমরান খান। এ ছবির নিচে উর্দু ক্যাপশনে লেখা অরিজিত সিংয়ের বিখ্যাত গান-‘আচ্ছা চালতা হু, দোয়াওমে ইয়াদ রাখ না (ঠিক আছে চলে যাচ্ছি, আমাকে দোয়া করো)’। আরেকটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে-ইজি চেয়ারে বসে হাসছেন শাহবাজ শরিফ। এ ছবির হ্যাশট্যাগে লেখা হয়েছে-‘গেইম চেঞ্জার, সারপ্রাইজ ডে, সুপ্রিমকোর্ট’। সাদ কায়সার নামের জনৈক ইমরান খানের ব্লাড প্রেসার মাপার ছবি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘এখন ইমরান খান’। এবাদ উল্লাহ নামের একজন ইমরানের ছবির গায়ে ক্যাপশন দিয়েছেন-‘দুখ, দার্দ, পেইন, তাকলিফ।’ মেমে বাইজাইন নামের একজন ইমরান খানের প্রেসার পরিমাপের ছবির পাশে শাহবাজ শরিফের টাইয়ের নট ঠিক করার ছবি পোস্ট করেছেন।

Leave a Comment