জাতির উদ্দেশে ভাষণে যা বললেন ইমরান খান

 পাকিস্তানের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে অনাস্থা ভোট হতে যাচ্ছে শনিবার (৯ এপ্রিল) । এই অনাস্থা ভোটের আগে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে ভাষণ দিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। দীর্ঘ টেলিভিশন ভাষণে তিনি ফের বিরোধীদের বিরুদ্ধে ঘোড়া কেনাবেচার অভিযোগ তুললেন। পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি বিশ্বের নানা দেশ ঘুরেছি, কিন্তু কোথাও এমন খোলামেলা দুর্নীতি দেখিনি।’

ইমরান খান বলেন, ‘বহির্বিশ্বের হস্তক্ষেপের দাবি নিয়ে তদন্ত করেনি সুপ্রিম কোর্ট, এই রায় নিয়ে আমি পুরোপুরি হতাশ। জাতীয় পরিষদ পুনরুদ্ধারের বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তকে সম্মান করলেও এই রায়ে আমি দুঃখিত।’

বিদেশী শক্তিকে প্রতিহত করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনি যদি সরকার পতনের বিদেশী প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ না করেন তবে আপনি আপনার ভবিষ্যতকে ঝুঁকিতে ফেলবেন। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘২৬ বছর আগে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ গঠন করার পর থেকে আমি যে নীতিগুলি মেনে চলেছি, তা পরিবর্তিত হয়নি। আগেও পাকিস্তানের অনাস্থায় বিদেশী হস্তক্ষেপ ছিল। এখনও আছে। তারা প্রতিবার ষড়যন্ত্র করে পাকিস্তান সরকার পতন করেছে। এবারও করতে চায়।’

তাকে গ্রেপ্তারের সময়ের কথা স্মরণ করে ইমরান খান বলেন, ‘আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, বিচার বিভাগই দেশের ন্যায়বিচারের অভিভাবক।’

গত ২৮ মার্চ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনার নির্ধারিত দিন ছিল বিরোধী এমপিদের। কিন্তু পার্লামেন্টারি বাধ্যবাধকতার কারণে তা পিছিয়ে যায়। পরে ৩ এপ্রিল বিরোধী দলগুলোর এই অনাস্থা প্রস্তাবকে ‘অসাংবিধানিক’ আখ্যা দিয়ে খারিজ করে দেন ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির ডেপুটি স্পিকার।

Leave a Comment