চুরির অপবাদে খুঁটির সঙ্গে বেঁধে শিশুকে নির্যাতন

 

চুয়াডাঙ্গায় চুরির অপবাদে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রকে খুঁটির সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে এক দোকান মালিকের বিরুদ্ধে। এ নিয়ে এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

রোববার (১০ এপ্রিল) দুপুরে সদর উপজেলার দোস্ত গ্রামের মায়ের দোয়া ফ্যাশন হাউজের সামনে এ ঘটনা ঘটে।স্থানীয়রা জানান, দুপুরে স্কুল থেকে মায়ের দোয়া ফ্যাশান হাউজে খাবার কিনতে যায় ওই শিশু। এসময় দোকানের মালিক টাকা চুরির মিথ্যা অভিযোগ তুলে আব্দুর রহমানকে দড়ি দিয়ে দোকানের সামনের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখেন। যদিও তার দেহ তল্লাশি করে কোন টাকা পাওয়া যায়নি।

দোস্ত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. মোমিন বলেন, খবর পেয়ে ওই ছাত্রকে ছাড়িয়ে আনি। তবে তার কাছে কোনো টাকা পাওয়া যায়নি। চুরির অপবাদ দিয়ে শিশুকে নির্যাতন কোনোভাবেই মানা যায় না।

এ ব্যাপারে দোকানে থাকা রোমানা বলেন, দোকানের একটি কৌটার মধ্যে টাকা ছিল। ওই কৌটা চুরির সময় আমি হাতেনাতে তাকে ধরেছি। তাই বেঁধে রেখেছিলাম। এর আগেও বিদ্যালয়ের এক ছাত্রী এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।

এ ব্যাপারে দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লুৎফুন কবির জানান, এখন পর্যন্ত থানায় কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Comment