খৎনার সময় শিশুর গোপনাঙ্গ কাটলেন পল্লী চিকিৎসক

 

‘সুন্নতে খৎনা’ করার সময় এক শিশুর বিশেষ অঙ্গ কেটে ফেলার ঘটনায় ২ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। ধৃত দুইজন মামলার এজাহারভূক্ত আসামি। র‌্যাব-১৫ বিশেষ অভিযান চালিয়ে দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর সিপাহীরপাড়া থেকে তাদের গ্রেফতার করে। ২০২১ সালের ২৮ নভেম্বর মোঃ মনজুর আলম তার ৮ বছরের শিশুকে খৎনা করানোর জন্য কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলার ছোট মহেশখালীর সিপাহীর পাড়াস্থ মেসার্স জাহেদ মেডিকোতে নেন। পরবর্তীতে জয়নাল আবেদীন নামে পল্লী চিকিৎসক খৎনা করার সময় শিশুটির পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেন। অতঃপর শিশুটির অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তার পিতা-মাতা তাকে অন্যত্র হাসপাতালে ভর্তি করান।

ওই ঘটনার পর সেই পল্লী চিকিৎসক ও তার সহযোগী শিশুটির পিতা-মাতাকে বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে দেয়ার হুমকি দেন। এ ঘটনায় গত ১০ ফেব্রুয়ারি শিশুটির বাবা বাদী হয়ে ২ জনের নাম উল্লেখ করে মহেশখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনাটি বিভিন্ন স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।এই ঘটনাটি র‌্যাব-১৫ অবহিত হয়ে আসামীদের গ্রেফতারে অভিযানে নামে। একপর্যায়ে গত ১ ফেব্রুয়ারি র‌্যাব-১৫ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কক্সবাজার জেলার মহেশখালী থানাধীন সিপাহীরপাড়া এলাকা থেকে জয়নাল আবেদীন (৩৫) ও মিজানুর রহমানকে (২৮) গ্রেফতার করে। ধৃত দুজন মহেশখালীর ২নং ওয়ার্ডের সিপাহী পাড়ার মোঃ ইসলাম। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ্ কক্সবাজার জেলার মহেশখালী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই প্রকাশ করেছে।

Leave a Comment