এগিয়ে এল না কেউ, রোজা রেখেই হিন্দু বৃদ্ধার শেষকৃত্য করলেন মুসলিমরা

৬০ বছর বয়সী হিন্দু নারীর শেষকৃত্যের জন্য কাউকেই পাচ্ছিল না পরিবার। এমন অবস্থায় এগিয়ে আসেন মুসলিম প্রতিবেশীরা। বেশ কয়েকদিন দিন সাম্প্রদায়িক উত্তেজনার বেশ কিছু ঘটনা উঠে এসেছে শিরোনামে। প্রতিবেশী দেশে ভারতে এ ঘটনা যেন বার বার ঘটছে। তবে দেশটিতে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঘটনাও নেহাৎ কম নয়।

সম্প্রতি ভারতের কর্ণাটকে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেখানে উগ্রপন্থী হিন্দুদের রোষানলের শিকার হচ্ছেন স্থানীয় মুসলিমরা। তবে এরই মাঝে সাম্প্রদায়িক মেলবন্ধনের একটি ঘটনা উঠে এল শিরোনামে। কর্ণাটকের মাইসরুতে এক হিন্দু নারীর শেষকৃত্যে এগিয়ে এসেছে মুসলিমরা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবর অনুযায়ী, চলতি রমজানের গত শুক্রবারের ঘটনা। জায়াক্কা দেবী নামের ৬০ বছরের বৃদ্ধার শেষকৃত্য করা নিয়ে বিপাকে পড়েন তার স্বামী ও ছেলে। কেউই এগিয়ে আসছিল না। আর সেটা বুঝতে পেরে রোজা রেখেই এগিয়ে আসেন ৫০-৬০ জন মুসলিম প্রতিবেশী। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে তারা ওই বৃদ্ধার শেষকৃত্য সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নেন।

তানভীর পাশা নামে এক সমাজসেবী দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, জায়াক্কা দেবী তার জীবনের বেশিরভাগ সময় এই এলাকায়ই কাটিয়েছেন। এখানে তারাই ছিলেন একমাত্র হিন্দু পরিবার। আর আমরা সকলেই মিলেমিশে দুর্দান্ত এক বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে গিয়েছিলাম।

তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন উৎসব ও পারিবারিক অনুষ্ঠান আমরা একসঙ্গে পালন করতাম। যখন আমরা তার হঠাৎ মৃত্যুর খবর শুনলাম তখন আমরা সবাই হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম। আর তাই আমরা সবাই মিলে তার জন্য আমাদের কাঁধ ধার দিয়ে তাকে সম্মানজনক বিদায় দিতে চেয়েছি। এই দুঃসময়ে তার পরিবারের পাশে দাঁড়াতে চেয়েছি।

মুসলিম প্রতিবেশীরা রোজা রেখেই তার শেষ যাত্রায় অংশ নেন বলে হিন্দুস্তান টাইমস তাদের প্রতিবেদনে উল্লেখ করে।

Leave a Comment